Breaking News
Home / জাতীয় / কমলগঞ্জে ইসকন নামহট্ট মন্দিরে হামলা ও ভাংচুর :: আহত -৬

কমলগঞ্জে ইসকন নামহট্ট মন্দিরে হামলা ও ভাংচুর :: আহত -৬

মোঃ মালিক  মিয়া /  রাজু  দত্ত ::  আলীনগর থেকে ঘুরে এসে ::
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার আলীনগরে ইসকন নামহট্ট মন্দিরে শশস্ত্র হামলা ও লুটপাট ও ঘটনায় ৮ জন ইসকন ভক্ত গুরুতর আহত হয়েছেন। তন্মধ্যে ৩ জনকে গুরুতর আহত অবস্থায় উদ্ধার করে এলাকাবাসী কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্ত্তি করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে আজ ২৫ শে নভেম্বর সকাল ৭ টা থেকে ৮ টার মধ্যে।
এলাকাবাসী ও প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, আলীনগর নামহট্ট মন্দিরের ইসকন ভক্তরা নিত্য দিনের মতো তাদের নামহট্ট মন্দিরে ভগবানের ভোগ নিবেদনের জন্য প্রসাদ রান্নায় ব্যস্ত ছিলেন। বিগত ১ মাস (দামোদর মাস) ব্রত করার পর আজকের দিনে ছিল তাদের ব্রত সমাপনী অনুষ্টান। সকালে আনুমানিক ৭ টা থেকে ৮ ঘটিকার সময় ভক্তরা অনুষ্টান স্থলে পূজা ও প্রসাদ রান্নার আয়োজন করছিলেন তখন একই এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রসী রাজীব গড়, খোকন রবিদাস ও বিকাশ বৈদ্যের নেতৃত্বে অরুণ বৈদ্য, বরুণ বৈদ্য, কিরণ বৈদ্য, শৈলেশ বৈদ্য, পল্টু রবিদাস, জাগুয়ার বৈদ্য ও চামুট রবিদাস সহ ১৫/২০ জনের একটি সংঘবদ্ধদল নামহট্ট মন্দিরে এসে পূজা অর্চনায় বাধা দেয়। এ নিয়ে ইসকন ভক্তদের সাথে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে তারা অতর্কিতে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ইসকন ভক্তদের উপর হামলা চালালে মন্দিরে উপস্থিত ভক্তরা রক্তাক্ত জখম হন। তাদের আর্ত চিৎকারে এলাকাবাসী ছুটে আহতদের উদ্ধার করে কমলগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্ত্তি করেন। সন্ত্রাসীরা ভক্তদের উপর হামলা করেই ক্ষান্ত থাকেনি তারা মন্দিররে ভাংচুর ও লুটপাট চালায় । ঘটনার খবর পেয়ে তৎক্ষনাৎ ওসি মোঃ আরিফুর রহমান ও এস আই শহীদ  ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন । এঘটনায় আলীনগর ইসকন নামহট্ট মন্দিরের সভাপতি সন্তোষ বর্মা বাদী হয়ে ১৯ জন কে আসামী করে কমলগঞ্জ থানায় একটি লিখিত এজাহার দায়ের করলেও এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত পুলিশ কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি।

এ ব্যাপারে আলাপ কালে সন্তোষ বর্মা বলেন, আমাদের নাম হট্টের লোকজনকে হুমকী ও হয়নরানীর ঘটনায় ইতিপূর্বে বিগত ২২/০৭/২০১৯ তারিখে কমলগঞ্জ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছিল । সেই অভিযোগ দায়েরের ৪ মাস পর  এই হামলার ঘটনা ঘটলো । তিনি হামলাারীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী জানিয়েছেন । এ ঘটনার পর ঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করতে হাসপাতালে ভরতি হয়েছেন প্রতিপক্ষের বরুণ বৈদ্য ও চামুট রবিদাস । সাংবাদিক পরিচয় পেয়ে তারা কোন কথা বলতে  রাজী হন নি।  তবে তারা উল্টো দাবী করেছেন নাম হট্টের লোকেরা তাদের উপর হামলা চালিয়েছে। তবে কোথায় আঘাত পেয়েছেন তার কোন সঠিক উত্তর দিতে পারেন নি।

কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ আরিফুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পুলিশ তাৎক্ষনিক ভাবে ঘটনাস্থল পরিদশর্ন করেছে । পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে রাখতে বিষয়টি কঠোর ভাবে পরয়বেক্ষন করছে। ঘটনার জন্য দায়ী যেই হউক না কেন তাকে খুজে বের করে আইনের আওতায় আনা হবে।

কমলগঞ্জ পৌর পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি, বিশ্বজিৎ রায় বলেন,  মন্দিরে হামলাকারীরা শুধু ধর্ম নয়  মানবতারও শত্রু,  এই ন্যাক্কারজনক ঘটনা  যারা ঘটিয়েছে তাদের অবিলম্বে গ্রেফতার করে এমন দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যাবস্থা করা হউক  যেন ভবিষ্যতে কেউ আর এ ধরণের কাজ করতে সাহস না পায়।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Check Also

কমলগঞ্জে শেষ হলো ২দিন ব্যাপি শান্তি নিকেতনে মনিপুরী নৃত্য প্রবর্তণের শতবর্ষ পূর্তি অনুষ্টান

কমলগঞ্জ বার্তা রিপোর্ট :: গতকাল শূক্রবার চিত্রাংকন প্রতিযোগীতা, সেমিনার , আলোচনা সভা ও মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক ...