Breaking News
Home / কমলগঞ্জ / কমলগঞ্জে সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তার বাড়িতে ডাকাতি, গুলিবিদ্ধসহ আহত-৫ নগদ অর্থ স্বর্ণালংকারসহ ১০ লক্ষ টাকার মালামাল লুট

কমলগঞ্জে সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তার বাড়িতে ডাকাতি, গুলিবিদ্ধসহ আহত-৫ নগদ অর্থ স্বর্ণালংকারসহ ১০ লক্ষ টাকার মালামাল লুট

আমিনুল ইসলাম হিমেল॥ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের জালালিয়ায় সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তার বাড়ীর তিনটি ঘরে দুধর্ষ ডাকাতি সংঘটিত হয়েছে। মুখোশধারী সংঘবদ্ধ ডাকাত দলের গুলিতে স্কুল ও কলেজের ২ শিক্ষার্থী, এক ব্যাংকার গুলিবিদ্ধ হয়ে গুরুতর আহত হয়েছেন। ডাকাতরা কূপিয়ে গুরুতর জখম করেছে আরো দু’জনকে। ডাকতরা নগদ অর্থ স্বর্ণলংকার আসবাবপত্রসহ প্রায় ১০ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করেছে। আহতদের সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজে ভর্তি করা হয়েছে। সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত অনুমান ২টায় ব্যাংকার নৃপতি রঞ্জন চৌধুরীর বাড়িতে ডাকাতির এ ঘটনা ঘটে। সরেজমিন পরিদর্শনে জানা যায়, সশস্ত্র মুখোশধারী ১৫-২০ জনের একটি সংঘবদ্ধ ডাকাত দল ব্যাংকার নৃপতি রঞ্জন চৌধুরীর ঘরের কলাপসিপল গেটের তালা ও দরজা ভেঙ্গে ঘরের লোকজনকে বেঁধে আলমারী ভেঙ্গে তছনছ করে। একই সময়ে ডাকাতদল পার্শ্ববর্তী ধনবতী চৌধুরী ও বিশ্ববতী চৌধুরীর ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভেতরে প্রবেশ করে পুরুষদেরকে বেঁধে মারধর করে ঘরের আসবাবপত্র ভেঙ্গে তছনছ করে। ডাকাতরা ব্যাংকার নৃপতি রঞ্জনকে বেঁধে নির্যাতনের সময় বাবাকে বাঁচাতে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী নিরুপম চৌধুরী (নির্জন) (১৬) ও একাদশ শ্রেণির শিক্ষার্থী অনামিকা চৌধুরী (১৯) এগিয়ে আসলে বাবাসহ তিনজনকে গুলি করে আহত করে ডাকাতদল। পার্শ্ববর্তী ঘরের ধনবতী চৌধুরী (৪২) ও বিশ্ববতী চৌধুরী (৩৮) কে দা দিয়ে কূপিয়ে গুরুতর আহত করে। পরে ডাকাত দল তিনটি ঘর থেকে নগদ ১০ হাজার টাকা, একটি লেপটপ, ২০ ভরি স্বর্ণালংকার, ৪টি মোবাইল ফোন আসবাবপত্র সহ প্রায় ১০ লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুট করে নিয়ে যায়। আহতরা সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকৎসাধীন রয়েছেন।
সংবাদ পেয়ে এএসপি সার্কেল মো. আশফাকুজ্জামান, চেয়ারম্যান ফজলুল হক বাদশা, জেলা পরিষদ সদস্য মো. হেলাল উদ্দীন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোন মামলা হয়নি। বাড়ির রনপতি চৌধুরী জানান, সশস্ত্র ডাকাত দল যাওয়ার সময়ও গুলি করে রাস্তা পেরিয়ে যায়। পরে থানা পুলিশকে বিষয়টি জানানো হয়। আলীনগর ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুল হক বাদশাহ বলেন, এতোবড় দুধর্ষ ডাকাতির ঘটনা আমাদেরকে হতবাক করেছে। এব্যাপারে এএসপি সার্কেল মো. আশফাকুজ্জামান বলেন, বিষয়টি গুরুত্বসহকারে তদন্ত করা হচ্ছে।
কমলগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ বদরুল হাসান বলেন, আমি ছুটিতে থাকলেও ঘটনার খবর পেয়ে কমলগঞ্জের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছি সাথে সাথে পুলিশকে ঘটনাস্থলে পাঠিয়েছি। আমি আসার পর মালামালসহ ডাকাতদের গ্রেফতারের চেষ্টা করব। সোনালী ব্যাংক কর্মকর্তা, নৃপতি রঞ্জন চৌধুরী সহ এলাকার সচেতন মহল অভিমত ব্যক্ত করে বলেছেন, জালালীয়ায় লিটনের বাড়ীতে গভীর রাত পর্যন্ত মদ, জুয়াসহ অসামাজিক কার্যকলাপ চলে। সে পুলিশের সোর্স থাকায় পুলিশ দেখেও না দেখার ভান করে। প্রশাসনের উর্ধতন কর্মকর্তাকে সচেতন মহলের অনুরোধ লিটনসহ জুয়াড়ীদের আটক করে জিজ্ঞাসাবাদের মাধ্যমে ডাকাতির রহস্য উদঘাটন সম্ভব।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Check Also

কমলগঞ্জে ৩য় শ্রেণীর ছাত্রীকে শ্লীলতাহানীর অভিযোগ ॥

বিশেষ প্রতিনিধি :: কমলগঞ্জ উপজেলার আলীনগর ইউনিয়নের বারামপুরে  রেনু মিয়া নামে এক লম্পটের বিরুদ্ধে  ৩য় ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *