Breaking News
Home / জাতীয় / করোনাভাইরাস সচেতনতায় : কমলগঞ্জে হাট-বাজারে কঠোর অবস্থানে সেনাবাহিনী ও পুলিশ

করোনাভাইরাস সচেতনতায় : কমলগঞ্জে হাট-বাজারে কঠোর অবস্থানে সেনাবাহিনী ও পুলিশ

আমিনুল ইসলাম হিমেল ॥ মরণব্যধী করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে অহেতুক হাট-বাজারে চলাচল না করতে, নিজের ও পরিবারের সদস্যদের সু-রক্ষায় নিজ নিজ বাড়িতে অবস্থানের জন্য কমলঞ্জ উপজেলা প্রশাসন, সেনাবাহিনী ও পুলিশ যৌথ মহড়া করেছিল।

বৃহস্পতিবার ২ এপ্রিল সকাল থেকে কঠোর অবস্থানে থেকে কমলগঞ্জের হাট-বাজার পর্যবেক্ষণ শুরু করে উপজেলা প্রশাসন, থানার পুলিশ প্রশাসন ও সেনা বাহিনীর সদস্যরা। বিধি নিশেষ না মানার কারণে শমশেরনগরে ১০ জনকে কয়েক ঘন্টা আটকিয়ে শাস্তি পরে ছেড়ে দেওয়া হয়েছে। তিন কাপড় ব্যবসায়ীসহ দুইজন মোটরসাইকেল আরোহীন ভ্রাম্যমাণ আদালত করে জরিমানা করা হয়।
বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় সেনা কর্মকর্তা ২য় ল্যা. মামুন, কমলগঞ্জ উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী হাকিম নাসরিন চৌধুরী, কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আরিফুর রহমান ও শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ অরুপ কুমার চৌধুরীর নেতৃত্বে কঠোর অবস্থানে থেকে কমলগঞ্জ সদরের ভানুগাছ বাজার, শমশেরনগর বাজার ও পতনউষার ইউননিয়নের শহীদনগর বাজারে অভিযান পরিচালিত হয়। এই ক্রান্তি লগ্নে এক শ্রেণির মানুষজন সরকারি নির্দেশনা মানছেন না বলেই যৌথভাবে এই মহড়া বলে কর্মকর্তারা জানান।
অভিযানকালে বাজারে বিনা কারণে ঘোরাফেরার কারণে মোট ১২ জনকে আটক করে পুলিশ কয়েক ঘন্টা আটকিয়ে রাখা হয়েছিল। বিধি নিশেষ অমান্য করে শমশেরনগরে কাপড়ের দোকানের একটি অংশ খুলে রাখার দায়ে ৩টি দোকানের ৬ জন কর্মচারীকে আটক করে শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়িতে আটকিয়ে রাখা হয়। পরে শমশেরনগর বাজারের ৩টি কাপড়ের দোকানদার ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। দুইজন মোটরসাইকেল আরোহীকে আটকিয়ে হেলমেট না থাকার কারণেও জরিমাানা করা হয়েছে।
কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আরিফুর রহমান বলেন, ‘গ্রাম-গঞ্জে মানুষের সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখাসহ জনসচেতনা বৃদ্ধিতে উপজেলা প্রশাসনও সেনাবাহিনীর সদস্যদের সাথে কাজ করছে পুলিশ। এছাড়া সড়কে পুলিশের মাধ্যমে যানবাহন চালকদের সচেতন করা হচ্ছে। উপার্জন বন্ধ হয়ে যাওয়া ব্যক্তি ও দিন মজুরদের খাদ্য সহায়তা দেয়া হয়েছে।’
সেনা কর্মকর্তা ২য় ল্যা. মামুন বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে জনসচেতনতায় বৃহস্পতিবার সকাল থেকে কমলগঞ্জে উপজেলা প্রশাসন ও থানার পুলিশের সাথে সেনাবাহিনী হাট-বাজার পর্যবেক্ষণে বের হয়েছে। এসময় পরস্পর তিন ফুট সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখতে নিত্যপণ্য ও ঔষধের দোকানের সামনে সাদা বৃত্ত এঁকে দেয়া হচ্ছে। করোনাভাইরাস প্রতিরোধে সবাইকে নিজ দায়িত্বে সচেতন হওয়ার আহবান জানান এ কর্মকর্তা।
উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ও নির্বাহী হাকিম নাসরিন চৌধুরী বলেন, বেশ কিছু দিন ধরে মানুষজনকে সতর্ক করে দেওয়ার পরও এক শ্রেণির মানুষজন ও ব্যবসায়ীরা এ নিয়ম মানছিলেন না। তাই বৃহস্পতিবার সকাল থেকে সেনা বাহিনীর সদস্য ও পুলিশ সদস্যদের সাথে উপজেলা প্রশাসন কিছুটা কঠোর পদক্ষেপ গ্রহন করেছে। এ জন্য বেশ কয়েকজনকে জরিমানা করা হয়েছে। প্রাথমিকভাবে আরও কয়েকজনকে হালকা শাস্তি দেওয়া হয়েছে। তবে কোন প্রকার প্রহার করা হয়নি। এর পরও সরকারি নির্দেশনা না মানলে পরবর্তী পর্যবেক্ষণে বের হয়ে আরও কঠোর ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Check Also

কমলগঞ্জ উপজেলা পুষ্টি সমন্বয় কমিটির দ্বি-মাসিক সভা অনুষ্ঠিত- কমলগঞ্জ বার্তা

রাফি আহমেদ রিপন , কমলগঞ্জ ।। খাদ্যের কথা ভাবলে, পুষ্টির কথা ভাবুন’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে ...