Breaking News
Home / জাতীয় / < গভীর রাতে কমলগঞ্জে ইউএনও-র নেতৃত্বে র‌্যাব-এর অভিযানে জুয়ার আসর তছনছ >

< গভীর রাতে কমলগঞ্জে ইউএনও-র নেতৃত্বে র‌্যাব-এর অভিযানে জুয়ার আসর তছনছ >

 

শমসেরনগর প্রতিনিধি:

বুধবার (১ নভেম্বর) দিবাগত রাত ১টার সময় মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জের আলীনগর ইউনিয়নের দুর্গম কামারছড়া চা বাগানে যাত্রার আড়ালে চলা জুয়ার আসরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা(ইউএনও)-ও নেতৃত্বে র‌্যাব-৯ শ্রীমঙ্গল ক্যাম্পের সদস্যদের বিশেষ অভিযান চলে। অভিযান টের পেয়ে জুয়াড়িরা পালিয়ে গেলেও আসরের সামিয়ানাসহ সরঞ্জাম ভেঙ্গে তছনছ করে দেওয়া হয়।

কমলগঞ্জ উপজেলা প্রশাসন সূত্রে জানা যায়, আলীনগর ইউনিয়নের কামারছড়া চা বাগানে চা শ্রমিকদের মনোরঞ্জনের নামে আয়োজিত যাত্রাপালার আড়ালে মঙ্গলবার থেকে শুরু হয়েছিল বড় ধরনের জুয়ার আসর। আয়োজকরা প্রতিদিন একটি সিএনজি অটোরিক্সায় করে যাত্রাপালার প্রচারার ফাঁকে জুয়ারও প্রচারনা করছিল। এ দিকে বুধবার থেকে সারা দেশে একযোগে শুরু হয় জুনিয়র সমাপনী(জেএসসি) পরীক্ষা। এর মাঝে যাত্রা ও জুয়ার আসর নিয়ে মঙ্গলবার থেকে কমলগঞ্জ উপজেলায় প্রশাসনের দায়িত্ব নিয়ে জনমনে শুরু হয় নানা গুঞ্জন। ফলে বুধবার দিবাগত রাত ১টায় কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হকের নেতৃত্বে শ্রীঙ্গলস্থ র‌্যাব-৯ ক্যাম্পের অধিনায়ক বিমান চন্দ্র কর্মকারসহ র‌্যাব সদস্যদের বিশেষ অভিযান পরিচালনা করা হয় কামারছড়া চা বাগানে।

কমলগঞ্জ উপজেলা সদর থেকে প্রায় ১০ কি:মি: দূরে প্রত্যন্ত পাহাড়ি এলাকার কামারছড়া চা বাগানে ইউএনও ও র‌্যাবের অভিযান টের পেয়ে আয়োজক ও জুয়াড়িরা পালিয়ে যায়। তবে অভিযানকালে জুয়ার আসনের সামিয়ানা, জুয়ায় ব্যবহৃত সামগ্রী ভেঙ্গে তছনছ করে দেওয়া হয়।

বাংলাদেশ চা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক আলীনগর চা বাগানের ফাঁড়ি সুনছড়া চা বাগানের শ্রমিক সন্তান রাম ভজন কৈরী বলেন, ভাবতে পরা যায় না, জেএসসি-ও মত একটি পাবলিক পরীক্ষার সময় প্রশাসন কিভাবে চা বাগানে যাত্রাপালার অনুমতি দেয়। আর এসব যাত্রাপালার সাথে আদৌ চা বাগানের লোকজন জড়িত থাকেন না। সব সময় বস্তির পেশাদার জুয়াড়িরাই যাত্রার অনুমতি নিয়ে মূলত জুয়ার আসর বসায়। তিনি কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাতে ধন্যবাদ দিয়ে বলেন, তিনি গভীর রাতে সময় উপযোগী অভিযান পরিচালনা করেছেন।

কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক জুয়ার আসরে গভীর রাতের অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আসলে বিভিন্ন পয়েন্টে জুযাড়িদের সংবাদদাতা থাকে। হয়তো তারা আগেই জানিয়ে দেওয়ায় আয়োজকসহ জুয়াড়িরা পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়েছে। তার পরও মূল আসর ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেওয়া হয়। আর জুয়ার বিরুদ্ধে এ অভিযান চলবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Check Also

বাংলাদেশ আঞ্জুমানে তালামীযে ইসলামিয়া রহিমপুরে পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী(স)উদযাপন উপলক্ষে,মোবারক র‍্যারী ও আলোচনা সভা

মোঃ অলিউর রহমান অলি, রহিমপুর কমলগঞ্জ থেকে॥ বাংলাদেশ আঞ্জুমানে তালামীযে ইসলামিয়া ১নং রহিমপুর ইউনিয়নের অন্তর্গত ...

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *