Breaking News
Home / কমলগঞ্জ / দুই ইউনিয়নের রশি টানাটানিতে রাস্তার বেহাল দশা ।। দুর্ভোগে আলীনগরবাসী

দুই ইউনিয়নের রশি টানাটানিতে রাস্তার বেহাল দশা ।। দুর্ভোগে আলীনগরবাসী

রাফি আহমদ রিপন, কমলগঞ্জ প্রতিনিধি।।

মৌলভীবাজার জেলার কমলগঞ্জ উপজেলার আলীনগর ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ডের কালীপুর-ঘোষপুর- কৃষ্ণপুর এই তিন সীমানার সাথে সংযুক্ত। দীর্ঘ দিন সংস্কার না হওয়ায় রাস্তাগুলো খানাখন্দে ভরা ও ছোট-বড় অসংখ্য গর্তের সৃষ্টি হয়েছে।সাম্প্রতিক বর্ষণে ওই সব গর্তে জল জমে প্রায় ডোবায় পরিণত হয়েছে বলে অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের। যাতায়াত করাই দুষ্কর। তাই চলাচল করতে গিয়ে প্রতিনিয়িত ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন যাতায়াতকারীরা।

স্থানীয়দের দাবী, তাদের জানা মতে আজ অবধি এই রাস্তার উন্নয়নের উদ্যোগ নেননি কোন জনপ্রতিনিধি । ফিবছর বর্ষা মৌসুমে তাই দূর্ভোগ পোহানোটা যেন এলাকাবাসীর নিয়তি হয়ে দাড়িয়েছে। এলাকাবাসী তাদের নিজস্ব অর্থায়নে স্বেচ্ছাশ্রমের মাধ্যমে প্রতিবছর রাস্তাটি মেরামত করে আসলেও রাস্তা সংস্কারের ব্যাপারে জনপ্রতিনিধিদের কারো কোন মাথা ব্যাথা নেই। । এই রাস্তার উন্নয়নের ব্যাপারে এলাকার মানুষ বার বার স্থানীয় জনপ্রতিনিধি চেয়ারম্যান মহোদয়, ইউ.পি সদস্যের দৃষ্টি কামনা করেছেন। কিন্তু উনারা শুধু এলাকার মানুষদের আশ্বাসের মধ্যেই রাখছেন। কাজের কাজ করছেন না কেউই। এলাকাবাসী বলছেন,ভোটের সময় আসলে স্থানীয় প্রতিনিধিরা রাস্তা মেরামত করার কথা বলে আমাদের কাছে ভোট ভিক্ষা করেন, কিন্তু ভোট শেষে জয়লাভের পর পুনরায় আমাদের রাস্তা ভিক্ষা করতে হয়। উনারা তো ভোট পেয়ে যান, কিন্তু আমরা রাস্তার উন্নয়ন পেলাম না।এইরকম আর কতো। আমরা আমাদের এই রাস্তার সংস্কার চাই। দ্রুত সরকারি টেন্ডার বাস্তবায়নের মাধ্যমে আমাদের এই নিমজ্জিত রাস্তাটির সংস্কার করা আমরা এলাকাবাসীর সময়ের দাবী। এই রাস্তাটি মূলত ৬নং আলীনগর ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ডের শেষ সীমানা এবং শমশেরনগর ইউনিয়ন পরিষদের শুরু। এইটি মূলত কালীপুর-ঘোষপুর- কৃষ্ণপুর এই তিন সীমানার সাথে সংযুক্ত। এই রাস্তা দিয়ে দুই ইউনিয়নের মানুষ যাতায়াত করে থাকে। তাই রাস্তাটি সংস্কার করার পুর্ণাঙ্গ দাবী দুই ইউনিয়নের মানুষেরই। এই রাস্তার উন্নয়ন কাজ হবে বলে যেমন আশ্বাস দিচ্ছেন আলীনগর ইউ.পি চেয়ারম্যান মহোদয় ঠিক তেমনি আশ্বাস দিয়ে আসছেন শমশেরনগর ইউ.পি চেয়ারম্যান মহোদয়। গ্রামের মানুষ এখন পুরোটাই হতাশ, আধৌ কি হবে তাদের এই রাস্তার সংস্কার। তারা এইরকমই মন্তব্য করছেন- তাদের এই রাস্তা কী বাংলাদেশের আওতাভুক্ত নয়, তারা কী তাদের এই রাস্তাটির উন্নয়য়ের ছোয়া পাবেন না। এই রাস্তাটির দ্রুত সংস্কার করে তাদের চলাচলের সুব্যবস্থা নিশ্চিত করার জন্যে কালিপুর, কৃষ্ণপুর এবং ঘোষপুর এই তিন এলাকার মানুষ প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন। এই ব্যাপারে আলীনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ফজলুল হক বাদশার সাথে যোগাযোগ করলে উনি জানান- এই রাস্তাটির অর্ধেক আলীনগর ইউনিয়ন এবং বাকী অর্ধেক শমশেরনগর ইউনিয়ন পরিষদের আওতায় রয়েছে। এছাড়া এই রাস্তার দুই পাশে শমশেরনগর ইউনিয়ন থেকে গাছের পজেক্ট করা হয়েছে। তাই এই রাস্তার দ্বায়ভার ও শমশেরনগর ইউনিয়নের। তিনি শমশেরনগর ইউ.পি চেয়ারম্যান এর সাথে এই রাস্তার সংস্কার করা নিয়ে আলোচনা করবেন বলে সাংবাদিক দের জানান ।

বার স্থানীয় জনপ্রতিনিধি চেয়ারম্যান মহোদয়, ইউ.পি সদস্যের দৃষ্টি কামনা করেছেন। কিন্তু উনারা শুধু এলাকার মানুষদের আশ্বাসের মধ্যেই রাখছেন। কাজের কাজ করছেন না কেউই। এলাকাবাসী বলছেন,ভোটের সময় আসলে স্থানীয় প্রতিনিধিরা রাস্তা মেরামত করার কথা বলে আমাদের কাছে ভোট ভিক্ষা করেন, কিন্তু ভোট শেষে জয়লাভের পর পুনরায় আমাদের রাস্তা ভিক্ষা করতে হয়। উনারা তো ভোট পেয়ে যান, কিন্তু আমরা রাস্তার উন্নয়ন পেলাম না।এইরকম আর কতো। আমরা আমাদের এই রাস্তার সংস্কার চাই। দ্রুত সরকারি টেন্ডার বাস্তবায়নের মাধ্যমে আমাদের এই নিমজ্জিত রাস্তাটির সংস্কার করা আমরা এলাকাবাসীর সময়ের দাবী। এই রাস্তাটি মূলত ৬নং আলীনগর ইউনিয়ন পরিষদের ১নং ওয়ার্ডের শেষ সীমানা এবং শমশেরনগর ইউনিয়ন পরিষদের শুরু। এইটি মূলত কালীপুর-ঘোষপুর- কৃষ্ণপুর এই তিন সীমানার সাথে সংযুক্ত। এই রাস্তা দিয়ে দুই ইউনিয়নের মানুষ যাতায়াত করে থাকে। তাই রাস্তাটি সংস্কার করার পুর্ণাঙ্গ দাবী দুই ইউনিয়নের মানুষেরই। এই রাস্তার উন্নয়ন কাজ হবে বলে যেমন আশ্বাস দিচ্ছেন আলীনগর ইউ.পি চেয়ারম্যান মহোদয় ঠিক তেমনি আশ্বাস দিয়ে আসছেন শমশেরনগর ইউ.পি চেয়ারম্যান মহোদয়। এই ব্যাপারে দৈনিক মৌলভীবাজার এক্সপ্রেস থেকে আলীনগর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জনাব ফজলুল হক বাদশার সাথে যোগাযোগ করলে উনি জানান- এই রাস্তাটির অর্ধেক আলীনগর ইউনিয়ন এবং বাকী অর্ধেক শমশেরনগর ইউনিয়ন পরিষদের আওতায় রয়েছে। এছাড়া এই রাস্তার দুই পাশে শমশেরনগর ইউনিয়ন থেকে গাছের পজেক্ট করা হয়েছে। তাই এই রাস্তার দ্বায়ভার ও শমশেরনগর ইউনিয়নের। তিনি শমশেরনগর ইউ.পি চেয়ারম্যান এর সাথে এই রাস্তার সংস্কার করা নিয়ে আলোচনা করবেন বলে এক্সপ্রেস প্রতিনিধিকে অবহিত করেছেন। গ্রামের মানুষ এখন পুরোটাই হতাশ, আধৌ কি হবে তাদের এই রাস্তার সংস্কার। তারা এইরকমই মন্তব্য করছেন- তাদের এই রাস্তা কী বাংলাদেশের আওতাভুক্ত নয়, তারা কী তাদের এই রাস্তাটির উন্নয়য়ের ছোয়া পাবেন না। এই রাস্তাটির দ্রুত সংস্কার করে তাদের চলাচলের সুব্যবস্থা নিশ্চিত করার জন্যে কালিপুর, কৃষ্ণপুর এবং ঘোষপুর এই তিন এলাকার মানুষ প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করেছেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Check Also

কমলগঞ্জে সমাজসেবা অধিদপ্তর কর্তৃক দুটি চা বাগানে দুই প্রতিবন্ধী গৃহ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন

আমিনুল ইসলাম হিমেল ॥ মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর কর্তৃক বাস্তবায়নের শমশেরনগর  ও আলীনগর চা বাগানে দুই ...