Breaking News
Home / আলোচিত খবর / সম্পাদকের সম্পত্তি সরকারি অনুমোদন প্রাপ্ত কৃষ্ণপুর যুব উন্নয়ন সমিতি-কমলগঞ্জ বার্তা

সম্পাদকের সম্পত্তি সরকারি অনুমোদন প্রাপ্ত কৃষ্ণপুর যুব উন্নয়ন সমিতি-কমলগঞ্জ বার্তা

মৌলভীবাজার জেলার কমলগন্জ থানার অধীন শমসেরনগরের কৃষ্ণপুর গ্রামের সরকারি অনুমোদন প্রাপ্ত সমিতি ঘিরে চলছে দূর্নীতি।
কৃষ্ণপুর যুব উন্নয়ন সমিতির পথচলা শুরু ১৯৮০ইং সালে। যা সরকারী ভাবে অনুমোদন লাভ করে ১৯৮৭ইং সালে। রেজি নং– মৌলভী–৬৭/৮৭.
সমিতির প্রতিষ্টাকালীন কমিটি বদল করে ২০০৯ সালে নতুন কমিটি গঠন করা হয়, তবে সভাপতি, সম্পাদক ব্যতীত সমিতির কোন সদস্য উক্ত নতুন কমিটির বিষয়ে অবগত নয়।
নতুন সভাপতি, সম্পাদক দায়িত্ব পাবার পর থেকে ২০০৯ ইং হতে ২০১৯ইং পর্যন্ত সমিতির কোন কার্যক্রম চালু নেই। সমিতির কোন সদস্য জানেনা সমিতি কোন পর্যায় অাছে। কৃষ্ণপুর যুব উন্নয়ন সমিতির উদ্দেগে কৃষ্ণপুর সড়ক থেকে শমসেরনগর যাতায়াতের রাস্তার দুপাশে লাগানো গাছ একে একে সুবিধামত কেটে ভোগ করা হচ্ছে। সরকারী কোন অনুদান অাসছে কিনা সে ব্যপারে সভাপতি, সম্পাদক কোন তথ্য দিতে নারাজ।

এমতাবস্থায় কৃষ্ণপরের যুব সমাজ বারবার সমিতির বিষয়ে সভাপতি, সম্পাদকের কাছে তথ্য চেয়ে ব্যর্থ হয়।
তরুন সমাজের পক্ষ থেকে সমিতি সুন্দর ভাবে পরিচালনা করার জন্য নতুন কমিটি গঠন করে দিতে দাবি জানানো হয়। কিন্তু সভাপতি, সম্পাদক বারবার তালবাহানা করছেন। সরকারী রেজিস্টারকৃত একটি উন্নয়ন মূলক সমিতির সকল উন্নয়ন মূলক কার্যক্রম সেবা থেকে বন্ঞিত কৃষ্ণপুর গ্রামের জনগন।
একাদিক বার সমিতির সভাপতি, সম্পাদকের সাথে সমিতির বিষয়ে কথা বলতে গেলে তারা প্রতিষ্টাকালীন কমিটির সদস্য ব্যতীত অন্য কারো সাথে সমিতির বিষয়ে কথা বলতে নারাজ। যুব সমাজের পক্ষ থেকে প্রতিষ্টা কালীন সদস্যদের সাথে যোগাযোগ করা হলে কেউ সঠিক ভাবে বলতে পারেনি সমিতি কোন পর্যায় অাছে।
সভাপতি , অার সম্পাদক ব্যতীত কেউ জানেনা সমিতির কার্যক্রম। প্রতিষ্টাকালীন কমিটি বদলের পর ২০০৯ থেকে অাজ পর্যন্ত কোন সভার অায়োজন করেননি বর্তমান সভাপতি, সমম্পাদক। প্রতিষ্টাকালীন অনেক সদস্য অাজ মৃত, কেউবা প্রবাসে, তাই সমিতিকে নিজের কল্যানে ব্যবহার করছেন সভাপতি, সম্পাদক ভুয়া কমিটির নাম দেখিয়ে। এমন অভিযোগ করা হচ্ছে তরুন সমাজের পক্ষ থেকে। গতবছর সমিতির বর্তমান সভাপতি সাইফুদ্দিন লালা সাহেবের মৃত্যুর পর সমিতির নতুন কমিটি গঠনের জন‍্য বর্তমান সম্পাদক আব্দুল হাই (ফজলু) সমিতির দরকারি কাগজপত্র ও প্রমানাদি গায়েব করে সাবেক মৃত সভাপতিদের উপর দায় দেন।
বর্তমানে তার কাছে সমিতির প্রয়োজনীয় কাগজপত্র চাওয়ার পর তিনি নতুন তালবাহানা করে যাচ্ছেন। সমিতিকে নতুন ভাবে পরিচালনা করার জন‍্য গ্রামের কিছু সচেতন নাগরিক চেষ্টা করলেও সম্পাদক সাহেবের লুকোচুরির জন‍্য তা সম্ভব হচ্ছেনা।
এমতাবস্থায় কৃষ্ণপুর তরুন সমাজের সময়ের দাবি অাজ, কৃষ্ণপুর যুব উন্নয়নের অগ্রযাত্রা বাড়াতে তরুনদের সমন্বয়ে নতুন যোগ্য কমিটি গঠন করে দেয়া। কৃষ্ণপুর গ্রামের উন্নয়ন বাড়াতে কৃষ্ণপুর যুব উন্নয়ন সমিতির রক্ষনাবেক্ষন অতি জরুরী। সমিতির কার্যক্রম সঠিক ভাবে পরিচালনার জন্য সমাজ সেবা অধিদপ্তরের দৃষ্টি অাকর্ষন করছি। সেই সাথে উক্ত সমিতির সাবেক সদস্যদের সমিতির অগ্রযাত্রায় সহয়তা করার অনুরোধ করা হচ্ছে তরুন সমাজের পক্ষ থেকে।
পোষ্টটি শেয়ার করে জনসাধারণকে অভিহিত করার অনুরোধ করা হল।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Check Also

কমলগঞ্জে বিএমএসএফ’র পক্ষে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদান-কমলগঞ্জ বার্তা

আমিনুল ইসলাম হিমেল॥ কমলগঞ্জে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরাম-বিএমএসএফ’র পক্ষে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ...