Breaking News
Home / অপরাধ / কমলগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বসত বাড়িতে হামলা,  আটক-১

কমলগঞ্জে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে বসত বাড়িতে হামলা,  আটক-১

রাফি আহমদ , কমলগঞ্জ ।।
মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ পৌরসভার নছতপুর গ্রামে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতির চাচা যুবলীগ নেতা শাহাজাহান মিয়ার নেতৃত্বে শুক্রবার (১৫ মে) গভীর রাতে (আনুমানিক ১টায়) এক টিউবওয়েল মিস্ত্রীর বসত ঘরে হামলা চালানো হয়েছে। অতর্কিত এ হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন ঐ পরিবারের নারীসহ ৪ জন। তন্মধ্যে মঞ্জু মিয়া (২৮) নামে ঐ টিউবয়েল মিস্ত্রীকে আশংকাজনক অবস্থায় সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্ত্তি করা হয়েছে।
আজ শনিবার (১৬ মে) দুপুরে কমলগঞ্জ থানার পুলিশ হামলার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে যুবলীগ নেতা শাহজাহান মিয়াকে আটক করেছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, শুক্রবার বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রাহাত ইমতিয়াজ রিপুলের এক আত্মীয় সিএনজি অটোরিকশাযোগে কমলগঞ্জ পৌর এলাকার নছরতপুর গ্রাম্য রাস্তা দিয়ে যাচ্ছিলেন। অটোরিকশাটি টিউবওয়েল মিস্ত্রী মঞ্জুর বসত ঘরের পাশ দিয়ে যাবার সময় তার ৪ বছরের শিশু হাবিবকে আঘাত করে। এ নিয়ে সিএনজি চালকের সাথে মঞ্জুর কথা কাটাকাটি নিয়ে তর্কে জড়িয়ে পড়েন ছাত্রলীগ সভাপতির আত্মীয়ও। বাকবিতন্ডা আর গালাগালিতে মঞ্জুর উপর ক্ষিপ্ত হন তিনি।
আহত মঞ্জুর পরিবারের সদস্যরা অভিযোগ করে বলেন, এই ঘটনার জের ধরে শুক্রবার রাত ১টার দিকে কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রাহাত ইমতিয়াজ রিপুল ও তার চাচা যুবলীগ নেতা শাহজাহান মিয়ার নেতৃত্বে দেশীয় অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে মঞ্জুর বসত ঘরে হামলা করা হয়। ভাংচুর করা হয় বসত ঘরের আসবাবপত্র। এ সময় হামলাকারীরা মঞ্জুকে মাথাসহ শরীরে এলোপাথাড়ী কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করা হয়। হামলার হাত থেকে রক্ষা পায়নি মঞ্জুর প্রতিবন্ধী ভাই মঈন মিয়া, অন্তঃসত্তা স্ত্রী শিল্পী বেগম, মা ছয়ফুল বেগম।
পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। এদের মধ্যে অবস্থার অবনতি ঘটায় গুরুতর আহত মঞ্জুকে আশংকাজনক অবস্থায় শনিবার রাতেই সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল স্থানান্তর করা হয়। কমলগঞ্জ থানা পুলিশ রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে। শনিবার দুপুরে কমলগঞ্জ থানার পুলিশ হামলার ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে যুবলীগ নেতা শাহজাহান মিয়াকে আটক করেছে।
তবে অভিযোগ অস্বীকার করে কমলগঞ্জ উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি রাহাত ইমতিয়াজ রিপুল বলেন, শুক্রবার বিকালে নিকট আত্মীয়কে নাজেহাল ও তাকে বহনকারী সিএনজি চালককে মারধরের কারণ জানতে গেলে অনাকাঙ্খিত ঘটনা ঘটলেও ভাংচুরের কোনো ঘটনা ঘটেনি। তাছাড়া এ সময় তিনি বাইরে ছিলেন।
কমলগঞ্জ থানার ওসি আরিফুর রহমান জানান, পুলিশ শুক্রবার রাতেই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এ ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে পুলিশ একজনকে আটক করেছে। মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Check Also

প্রধানমন্ত্রীর পাইলট প্রকল্প’র গৃহ পেলেন কমলগঞ্জের প্রতিবন্ধী-কমলগঞ্জ বার্তা

আমিনুল ইসলাম হিমেল ॥ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পাইলট প্রকল্প থেকে মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর চা ...