Breaking News
Home / কমলগঞ্জ / # কমলগঞ্জে পল্লী বিদ্যুতের লাইন স্থাপন নিয়ে অর্থ আদায় ও সাংবাদিকদের উপর হুমকি – ইউপি সদস্যসহ ৩ জনের উপর থানায় লিখিত অভিযোগ #

# কমলগঞ্জে পল্লী বিদ্যুতের লাইন স্থাপন নিয়ে অর্থ আদায় ও সাংবাদিকদের উপর হুমকি – ইউপি সদস্যসহ ৩ জনের উপর থানায় লিখিত অভিযোগ #


বিশেষ প্রতিনিধি :
মৌলভীবাজার পল্লী বিদ্যুৎ সমিতির নবনির্মিত লাইন স্থাপনে কমলগঞ্জে গ্রামীণ রাস্তার মাঝে বৈদ্যুতিক খুঁটির টানা তার স্থাপন করা নিয়ে ইউপি সদস্য কর্তৃক ২৭ লাখ টাকা অর্থ আত্মসাতের ঘটনায় গ্রামবাসীর মাঝে উত্তেজনা ও দুই সাংবাদিককে হুমকির ঘটনায় ইউপি সদস্যসহ ৩ জনের উপর কমলগঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ করা হয়। রোববার (২০ মে) রাতে মসুদ আলী নামে এক গ্রামবাসী এ অভিযোগ করেন। গত শনিবার থেকে শুরু হওয়া উত্তেজনায় রোববার (২০ মে) কমলগঞ্জে কর্মরত দৈনিক সমকাল ও ইত্তেফাক পত্রিকার দুই প্রতিনিধি সরেজমিন তথ্য সংগ্রহকালে স্থানীয় ইউপি সদস্য, তার ছেলে ও নিজস্ব লোকজন তাদের উপর হামলা চেষ্টা করে আড়াই ঘন্টা অবরোধ করে রেখেছিল। সোমবার (২১ মে) এ সম্পর্কে বিভিন্ন সংবাদপত্রে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ হয়েছে।
কমলগঞ্জ থানায় রোববার রাত সাড়ে ১১টায় রহিমপুর ইউনিয়নের দক্ষিণ বড়চেগ গ্রামের মুসদ আলীর (২৭) করা লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, এ গ্রামে সরকারী বিদ্যুৎ লাইন স্থাপনে স্থানীয় ৩নং ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মাহমুদ আলী, তার ছেলে বাবেল মিয়াসহ কয়েকজনকে ২৭ লাখ টাকা প্রদান করা হয়েছে। ইতিমধ্যে গ্রামে বৈদ্যুতিক খুটি স্থাপন শেষে তার টানার কাজ চলছিল। এসময় শনিবার গ্রামীণ রাস্তার মাঝেই খুটির টানার জন্য আলাদা একটি গর্ত করা হয়। গ্রামবাসীরা রাস্তায় গর্ত করা নিয়ে আপত্তি জানালে ওয়ার্ড ইউপি সদস্য মাহমুদ আলী, তার ছেলে বাবেল মিয়া গংদের সাথে গ্রামবাসীর বিরোধ ও উত্তেজনার সৃষ্টি হয়। এ খবর পেয়ে রোববার দৈনিক ইত্তেফাক কমলগঞ্জ প্রতিনিধি নুরুল মোহাইমিন ও সমকাল প্রতিনিধি প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ সরেজমিন সংবাদ তথ্য সংগ্রহ করতে আসেন। গ্রামবাসীর কাছ থেকে অভিযোগ শুনে ইউপি সদস্য মাহমুদ আলীর সাথে মুঠোফোনে ফোনে কথা বলেন সমকাল প্রতিনিধি প্রনীত রঞ্জন দেবনাথ ও ইত্তেফাক প্রতিনিধি নুরুল মোহাইমিন মিল্টন। এসময় মুঠোফোনে দুই প্রতিনিধির সাথে উত্তেজিতভাবে কথা বলে কিছুক্ষণের মধ্যেই ছেলে বাবেল মিয়াকে সাথে নিয়ে ঘটনাস্থলে আসেন তিনি (ইউপি সদস্য)। ঘটনাস্থলেই এসে তিনি দুই সাংবাদিকের উপর আক্রমণের চেষ্টা করলে গ্রামবাসীর সহায়তায় তা সম্ভব হয়নি। পরে গালিগালাজ করে সাংবাদিকদের আড়াই ঘন্টা অবরোধ করে পরবর্তীতে আক্রমণের হুমকি দিয়ে যান ইউপি সদস্য ও তার ছেলে।
রোববার রাতে কমলগঞ্জ থানায় দক্ষিণ বড়চেগ গ্রামের মসুদ আলীর দায়ের করা অভিযোগের পর গতকাল সোমবার কমলগঞ্জ থানার এসআই ফরিদ উদ্দীন ঘটনাস্থল তদন্ত করে গ্রামবাসীর বক্তব্য গ্রহন করেন। তদন্তকারী কর্মকর্তা এসআই ফরিদ উদ্দীন বলেন, এ গ্রামে ইউপি সদস্য মাহমুদ আলীসহ তার পক্ষের লোকজনের সাথে গ্রামবাসীর উত্তেজনার সত্যতা নিশ্চিত করেন। গ্রামীণ রাস্তায় খুটির টানা স্থাপনে গর্ত করার কথা স্বীকার করে তিনি বলেন এর সংবাদ তথ্য সংগ্রহকালে দুইজন সাংবাদিকের সাথে খারাপ আচরণ করা হয়েছে। পরে থানা থেকে একজন এসআই-এর নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল আসার পর সাংবাদিকদ্বয় নিরাপদে এ গ্রাম ত্যাগ করেন।
কমলগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোক্তাদির হোসেন পিপিএম বলেন শনিবার বৈদ্যুতিক লাইন স্থাপনকারী কর্মীদের মারধর করার ও রোববারের ঘটনায় ইউপি সদস্যসহ তিন জনের উপর পৃথক দুটি অভিযোগ গ্রহনের সত্যতা নিশ্চিত করেন। তিনি আরও বলেন দুটি অভিযোগের তদন্ত শেষে পরবর্তী ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Check Also

কমলগঞ্জে পূর্বশত্রুতার জের ধরে প্রাণ হত্যার চেষ্টা-কমলগঞ্জ বার্তা

কমলগঞ্জ বার্তা রিপোর্ট ॥ কমলগঞ্জ উপজেলার শমশেরনগর ইউনিয়নের ভাদাইরদেউল লাঘাটা ব্রিজ সংলগ্ন রাস্তার উপরে পূর্ব ...