Breaking News
Home / জাতীয় / প্রধানমন্ত্রীর উপহার পৌছে দিলেন জেলা প্রশাসককরোনায় মৃত্যুবরণকারী পরিবারের সদস্যের কাছে

প্রধানমন্ত্রীর উপহার পৌছে দিলেন জেলা প্রশাসককরোনায় মৃত্যুবরণকারী পরিবারের সদস্যের কাছে

স্টাফ রিপোর্টার॥ মৌলভীবাজার পৌর এলাকার ৯ নং ওয়ার্ডের শেখেরগাঁও এলাকার করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারী সৈয়দা আফছারুন নেছার বাড়িতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পৌছে দিলেন জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান।

পরিবারের সদস্যরা জানান ১০ মে বিকেল সাড়ে চারটায় হঠাৎ করে বাড়িতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার নিয়ে আসেন জেলা প্রশাসক মীর নাহিদ আহসান। এর আগে জেলা প্রশাসক বেশ কয়েকজন করোনায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণকারীর বাড়িতে প্রধানমন্ত্রীর উপহার পৌছে দেন।এ সময় জেলা প্রশাসকের সাথে ছিলেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মল্লিকা দে, সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শরিফুল ইসলামসহ প্রশাসনের কর্মকর্তাগন।

এ সময় জেলা প্রশাসক মরহুমের শোকাহত পরিবারের মাঝে উপস্থিত হয়ে পরিবার পরিজনের প্রতি সহানুভূতি ও সমবেদনা প্রকাশ করেন। এবং যে কোন সমস্যায় তাঁদের পরিবারের পাশে থাকার অঙ্গীকার ব্যক্ত করেন।
প্রধানমন্ত্রীর দেয়া উপহার সামগ্রী নানা ধরণের ফলমূল ছাড়াও নগদ পাঁচ হাজার টাকা তুলে দেন করোয়ায় মৃত্যুবরণকারী সৈয়দা আফছারুন নেছার ছেলে বেলাল আহমদ রাজা, নোমান আহমদ রাজা ও মেয়ে লতিফা রাজা মনির হাতে।
উল্লেখ্যযে, সৈয়দা আফছারুন নেছা সাংবাদিক মোস্তাক চৌধুরীর শাশুরী। তিনি বার্ধক্যজনিত অসুস্থতায় মার্চ মাসের শেষের দিকে সিলেট রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি হয়ে ৮ দিন চিকিৎসা গ্রহণ করে বাড়ীতে চলে আসেন। রাগীব রাবেয়া মেডিকেল কলেজে থাকাবস্থায় তার করোনা টেষ্ঠ করা হলে রিপোর্ট নেগেটিভ আসে। বাড়ীতে আসার কয়েকদিন পর হঠাৎ তাঁর শ্বাসকষ্ট শুরু হলে বাসায় চিকিৎসকের পরামর্শে অক্সিজেন দেয়া হয়। অবস্থার উন্নতি না হয়ায় মৌলভীবাজার ২৫০ শয্যা বিশিষ্ট সদর হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করা হয়। দুই দিন হাসপাতালের আইসিইউতে থাকার পর ২৩ মার্চ দুপুর ১২.২০ ঘটিকায় তিনি মৃত্যু বরণ করেন।
মৃত্যৃর পর তাঁর জানাজার নামাজের একটু পূর্বে মুঠোফনে একটি মেসেজ আসে, তিনি করোনা পজিটিভ ছিলেন।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Check Also

সাংবাদিক রোজিনা ইসলামকে লাঞ্ছিতের ঘটনায় শ্রীমঙ্গলে মুখে কালো কাপড় বেধে প্রতিবাদ

শ্রীমঙ্গল প্রতিনিধি॥ প্রথম আলোর জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক রোজিনা ইসলামকে হেনস্তা, শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করা ও মিথ্যা মামলা ...