Breaking News
Home / সাহিত্য ও সংস্কৃতি / বাস্তবতার জলছাপে চা শ্রমিকদের জীবন প্রসঙ্গ: অনুভূতি পাঠ

বাস্তবতার জলছাপে চা শ্রমিকদের জীবন প্রসঙ্গ: অনুভূতি পাঠ

খালিদ সাইফুল্লাহ্॥

একদা মেঘাচ্ছন্ন আকাশের সূর্যিমামা যখন আড়ালে মুচকি হেসে প্রকৃতির খেয়ালিপনা উপভোগ করতে ভীষণ উদগ্রীব,তখন ক্ষণিকের এই সময়টাকে বাক্সবন্দি করে রাখার অভিলাষে আমরা ক’জন দারুণ ব্যস্ত। কিন্তু কপোলে মিছে চুমু এঁকে মহাকালের ডাকে সাড়া দিতে ব্যতিব্যস্ত দেখি অরন্য রোদনকে বারংবার। তবুও মনে পুঞ্জিভূত গুচ্ছময় প্রস্ফোটিত হৃদয়ছোয়া স্মৃতিগুলো নিষ্ঠুর মহাকালের সমীপে আপোষ করে না, গুটিকয়েক চঞ্চল আত্নার আত্মীয়দের আহ্বানে বেঁচে থাকে কালের পরিক্রমায়।

তারিখটা হল ২২ ফেব্রুয়ারী ২০১৮ ইং, তখন স্নিগ্ধ ভোরের আকাশে সূর্য উঠি উঠি করছে, ভূমিতে শিশিরের কণাগুলোর অপরূপ সৌন্দর্য; আর সূর্যতাপ ক্রমশ-ই প্রকৃতির কোলে বেড়ে চলে। সূর্যের তীব্র কিরণে জ্যোতির্ময় পৃথিবীতে আলোরেখাগুলো ছড়িয়ে পড়ে দিকবেদিক এবং নীল আকাশের পানে ফুটে ওঠে সম্ভাবনাময় প্রতিভাবানদের অভিভাষণ। প্রকৃতির খেয়ালিপনার সেক্ষণে ঘড়ির কাটাতে বাজে দুপুর ১২টা। দীর্ঘ এক ঘন্টাব্যাপী আমাদের শৈল্পিক কাব্যিক ছন্দে মেতে উঠে অপরূপ সৌন্দর্যের লীলাভূমি,সম্ভবনার অপার জনপদ, চা এর রাজধানী ও শাহজালাল (রহঃ) এর স্মৃতিবিজড়িত পূণ্যভূমি। আর আমাদের রচিত ‘বাস্তবতার জলছাপে চা শ্রমিকদের জীবন’ নামক অভিভাষণ লাভ করে পূর্ণত্ব। এটা যেনো এক ব্যতিক্রমধর্মী অভিভাষণ। যা কাজী নজরুল ইসলামের কুলি মজুর কবিতার কথা স্মরণ করিয়ে দেয়:

তোমারে সেবিতে হইল যাহারা মজুর, মুটে ও কুলি,
তোমারে বহিতে যারা পবিত্র অঙ্গে লাগাল ধূলি;
তারাই মানুষ, তারাই দেবতা, গাহি তাহাদেরি গান,
তাদেরি ব্যথিত বক্ষে পা ফেলে আসে নব উত্থান..।
মহা-মানবের মহা-বেদনার আজি মহা-উত্থান,
উর্ধ্বে হাসিছে ভগবান, নীচে কাঁপিতেছে শয়তান!

উল্লেখিত অভিভাষণটি ছিল অনেক অনেক শিক্ষণীয়, প্রাণবন্ত ও অসাধারণ। আমাদের আড্ডার পুরো সময় স্মৃতির পাতায় জায়গা করে নিবে নিঃসন্দেহে। কারণ মানুষ যতটানা স্মৃতিকাতর তার থেকেও বেশি স্মৃতিপাথর প্রাণী। কালের পরিক্রমায় অতিক্রান্ত স্মৃতিগুলো সম্পর্কে মানুষ বরাবর-ই উদাসীন,কাজেই মানুষ অনায়াসেই ভুলে যায় কত শত স্মৃতিচিহ্ন! তবুও হৃদয়ের ক্যানভাসে কিছু স্মৃৃতি জায়গা করে নেয়,যা কিছুটা সময়ের জন্য হলেও মানুষের দেহ-মনকে আন্দোলিত করে। এটা মানুষের সহজাত প্রবৃত্তি। যদিও দ্যোদুল্যমান নিগুঢ় বাস্তবতার হাতছানিতে স্মৃতির মিনার চুপসে যায়,কিন্তু মন বারংবার ফিরে চলে রোমান্থকর সোনালী অতীত কিংবা স্মরণীয় আর বরণীয় মুহূর্তগুলোর পেরেকবিদ্ধ স্মৃতিকোটায়।

সেদিনের সেই আড্ডা হয়তো চলার পথে স্মৃতির পাতাকে চালিকাশক্তিরূপে নড়াচড়া করবে নতুবা তা হয়তো খড়কুটো হবে,তবুও তা হৃদয়ের ক্যানভাসে ঠাই করে নেবে যুগ অবধি যুগ। পরিশেষে, বেঁচে থাকুক ফুলগুলো, বেঁচে থাকুক স্মৃতিগুলো এবং বেঁচে থাকুক নিষ্ঠুর মহাকাল। ভালোবাসা,ভালোলাগা ও শুভেচ্ছা নিরন্তর।

পাদটীকা: [মেট্রোপলিটন বিশ্ববিদ্যালয়,সিলেট এর আইন ও বিচার বিভাগ এর ৩১ তম ব্যাচ কর্তৃক আয়োজিত ‘ THE REALITY OF TEA PLANTATION WORKERS’ শীর্ষক আলোচনাতে দীর্ঘ ১ ঘন্টাব্যাপী উক্ত ব্যাচ এর শিক্ষার্থী মোঃ খালেদ সাইফুল্লাহ’র উপস্থাপনায় চা শ্রমিকদের নিম্নমানের জীবনকে উচ্চমানে উন্নীত করার লক্ষ্যে চা শ্রমিকদের সাক্ষাতকার, বাংলাদেশ শ্রম আইন,২০০৬ ও সুপারিশ উল্লেখপূর্বক মূল বক্তব্য তুলে ধরেন ‘ন্যায়পরায়ণতা’ নামক দল ( যার সদস্যরা হলেন- নিপা, খালেদ, সোনিয়া, জয়দীপ, আয়েশা, হালিমা,নাবিল, মুন্না, শোভন ও তাপি) এবং ‘ন্যায় সন্ধানী’ নামক দল (যার সদস্যবৃন্দ হলেন- ফয়সল, সাবিহা, মৌ, অমিত, তুষার, জান্নাত, উর্মি, রাজিব ও প্রিয়ম। )। দল দুটির তাৎপর্যমন্ডিত আলোচনা শেষে উক্ত আলোচনা সম্পর্কে বক্তব্য তুলে ধরেন আমন্ত্রিত অতিথি উল্লেখিত প্রতিষ্ঠানের আইন ও বিচার বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সহকারী অধ্যাপক শেখ আশরাফুর রহমান এবং আইন ও বিচার বিভাগ এর প্রভাষক মিতু আক্তার।]

লেখক: খালিদ সাইফুল্লাহ্
শিক্ষার্থী, আইন ও বিচার বিভাগ,
মেট্রোপলিটন বিশ্ববিদ্যালয়, সিলেট
কবি ও লেখক
তারিখঃ ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০১৮

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন

Check Also

কমলগঞ্জ পৌরসভার ভোট ১৬ জানুয়ারি

কমলগঞ্জ বার্তা রিপোর্ট ।। মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ পৌরসভার মেয়র ও কাউন্সিলর পদে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করেছে ...